বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কৃষ্ণার ডাঙ্গী স্পোর্টিং ক্লাব ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত ফরিদপুরের ছেলে মান্নান পায়ে হেঁটে কুয়াকাটা গিয়ে স্বপ্ন পূরণ গোয়ালন্দে র‍্যাব-৮ এর সদস্যদের হাতে অজ্ঞান পার্টির পাঁচজন সদস্য আটক পদ্মাসেতু উদ্বোধন দেখতে গিয়ে অার বাড়ি ফিরেনি ভাঙ্গার ছেলে অহিদুল রাজৈরের খালিয়ায় উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে চান হামিদুল শাহ্আলম মিয়া ভাঙ্গার বীরপুত্র ‘এডিশনাল ডিআইজি’ পদে পদোন্নতি হওয়ায় মাওলানা সাখাওয়াত হোসেনের অভিনন্দন  নতুন দুই বিভাগ পদ্মা ও মেঘনা ভাঙ্গায় বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়েছে  বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল কর্তৃক ফরিদপুরে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফরিদপুরে প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গলী দেখিয়ে পুকুর খনন: অতপর বেকুর ব্যাটারী জব্দ

অসহায়দের কাছে ২০ টাকায় ডাব বিক্রি করেন মজিবর

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৪৪ Time View

অসহায়দের কাছে প্রতি পিস ডাব মাত্র ২০ টাকায় বিক্রি করেন খুলনার মজিবর জমাদ্দার। কয়েক ধরনের মানুষের কাছে ছাড়েও বিক্রি করেন। তার এ উদ্যোগ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ প্রশংসা পাচ্ছে।

খুলনার নিউমার্কেট এলাকার ১৫ বছর ধরে ডাব বিক্রি করছেন মজিবর জমাদ্দার। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নিউমার্কেটের এক নম্বর গেটের সামনে প্রতিদিনই তিনি ডাব বিক্রি করেন। তবে রোজায় একটু কম বিক্রি হচ্ছে বলে জানান তিনি।

মজিবর জমাদ্দার বলেন, তিনি যশোর থেকে ডাব এনে বিক্রি করেন। প্রতি পিস ডাবের পাইকারি দাম ৫০ টাকা। বিক্রি করেন ৬০ টাকায়। তবে রোজাদার, রোগী এবং রমজান মাস উপলক্ষে সবার জন্য পাঁচ টাকা কম নেন। আর অসহায়দের কাছে মাত্র ২০ টাকায় ডাব বিক্রি করেন।

তার কাছে ডাব কিনতে আসা আব্দুল লতিফ বলেন, অন্য জায়গায় ডাবের দাম অনেক বেশি। কিন্তু মজিবর জমাদ্দার বাড়তি কোনো লাভ করেন না। ফলে তার কাছে ক্রেতার সংখ্যা কোনো সময় কম হয় না।

নিউমার্কেটের কর্মচারী জুনায়েদ জাগো নিউজকে বলেন, ‘মজিবর ডাবে ছাড় দেন বলে এখানে এখন আর কেউ ডাব বিক্রি করতে আসেন না। কারণ তারা মজিবরের মতো ছাড় দিয়ে বিক্রি করেন না।’

দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি ইউনিয়নের বাসিন্দা মজিবর জানান, ডাব বিক্রি করে প্রতিদিন ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা আয় হয় মজিবর জমাদ্দারের। এ দিয়েই তার সংসার চলে যায়। এরই মধ্যে ডাব বিক্রি করে দুই মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন। ছোট মেয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ছে। আর একমাত্র ছেলে অসুস্থ থাকায় তাকে দিয়ে কোনো কাজ করান না তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102